Time
Bangladesh Dhaka

12:21:16 PM

Australia Sydney

5:21:16 PM

Weather
Yahoo! Weather - Sydney Regional Office, AS


Current Conditions:
Find more about Weather in Sydney Regional Office, AU
Click for weather forecast
Currency Rate

Prayer Time
  • Fajr 4:41
  • Sunrise 6:14
  • Zuhr 1:09
  • Asr 4:53
  • Maghrib 8:02
  • Ishaa 9:31
Reader Number
           
 

স্থানীয় সংবাদ

ল্যাকেম্বার এমপি পদপ্রার্থী রশীদ ভুঁইয়ার জ্যেষ্ঠ কন্যার অকাল মৃত্যু
ল্যাকেম্বার এমপি পদপ্রার্থী রশীদ ভুঁইয়ার জ্যেষ্ঠ কন্যা ডানা ফাবিয়া ভূঁইয়া ইন্তেকাল করেছেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্নাইলাহি রাজিউন। গতকাল ১২ মার্চ, ২০১৫ বৃহস্পতিবারে তিনি মৃত্যুকোলে ঢলে পড়েন। মাত্র ঊনিশ বছরের সদাহাস্য, কোমলমতী, ন্র স্বভাবের মেয়ে ছিল ডানা ফাবিয়া ভূঁইয়া। ইউনিভার্সিটি অফ ওয়েস্টার্ন সিডনির স্কুল অফ বিজনেস এন্ড ল এর তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন ডানা। শত শত মানুষের ঢল নামে ৪৩ ব্যাঙ্কসিয়া রোড, গ্রিনএকরে রশীদ ভুঁইয়ার বাড়িতে। লেবার অথবা লিবারেলের রাজনৈতিক ভেদাভেদ ভুলে উভয়পক্ষের নেতাকর্মীরা রশীদ পরিবারকে একটু সান্তনা দিতে একত্র হয় সেখানে। দলমত নির্বিশেষে সবাই প্রার্থনা করেছে ডানা ফাবিয়া ভূঁইয়ার পরপারের শান্তির জন্য; আর রশীদ পরিবারের সেই শোকভার বহনের ক্ষমতা লাভের জন্য। শোকাহত রশীদ ভূঁইয়ার পরিবারকে সমবেদনা জানাতে সেখানে আরও উপস্থিত ছিলেন কাউন্সিলর কার্ল সালেহ, কাউন্সিলর মাইকেল হাওয়াত, হারুনুর রশীদ, ইমামুল হক, রিয়াদ মাহমুদ, গাজী কামরুল হুসাইন নীলু, অপু সরোয়ার, গাউসুল আলম শাহাজাদা, মনোয়ার মৃধা মুন্না, মেহেদী হাসান, জামিল হুসাইন, আবুল বাশার খান, এস আর খান, আনিসুর রহমান রিতু, নোমান শামীম সহ আরও অনেকে। বাংলাবার্তার সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ তার এই অকাল মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করছে এবং তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করছে।
--------
খালেদা জিয়ার সঙ্গে ইইউ প্রতিনিধি দলের বৈঠক
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৈঠক করেছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) ৬ সদস্যের প্রতিনিধি দল। মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ইউরোপীয় ইউনিয়নের মানবাধিকার বিষয়ক সংসদীয় উপ-কমিটির ৬ প্রতিনিধি খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। তাদের সঙ্গে দূতাবাসের ৩ সদস্যও ছিলেন। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বৈঠক শেষ হয়। বৈঠক শেষে ইইউ প্রতিনিধি দল সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলেনি। বৈঠকে খালেদা জিয়ার সঙ্গে ছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুল কাইয়ুম। মানবাধিকার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে সোমবার ঢাকা পৌঁছান ইউরোপীয় ইউনিয়নের মানবাধিকার বিষয়ক সংসদীয় উপ কমিটির প্রতিনিধি দল। গত দুই দশকে এটাই ইউরোপীয় সংসদীয় মানবাধিকার বিষয়ক উপ কমিটির প্রথম বাংলাদেশ সফর। রাজনৈতিক অধিকার, গণতান্ত্রিক চর্চা, মত প্রকাশের স্বাধীনতা, বাংলাদেশে শিল্পগুলোতে শ্রম অধিকারসহ বাংলাদেশের সার্বিক মানবাধিকার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করবে প্রতিনিধি দলটি। তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সংসদের বিরোধী দলের নেতা জাতীয় পার্টির রওশন এরশাদ, নাগরিক সমাজ, ব্যবসায়ী এবং গণমাধ্যমের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করবেন।
--------
সন্ত্রাসী ও জঙ্গি কার্যক্রম বলে প্রচারযুদ্ধ করছে সরকার: বিএনপি
বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদ অভিযোগ করে বলেছেন, জনগণের বৈধ গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে সন্ত্রাসী ও জঙ্গি কার্যক্রম বলে চালিয়ে দেওয়ার প্রচারযুদ্ধ শুরু করেছে অবৈধ সরকার। তিনি দাবি করেন, পেট্রোল বোমায় আক্রান্ত মানুষের আর্তনাদকে পুঁজি করে আন্তর্জাতিক মহলের সহানুভূতি অর্জনের আওয়ামী ভণ্ডামি জনগণের সামনে উন্মোচিত হয়েছে অনেক আগেই। কতিপয় দলকানা গণমাধ্যমে দিবানিশি অপপ্রচারের মাধ্যমে গোয়েবলসীয় কায়দায় বিএনপি ও ২০ দলীয় জোটের নেতৃত্বে চলমান শান্তিপূর্ণ গণআন্দোলনকে কলুষিত করার হীন চক্রান্ত কখনো সফল হবে না। বুধবার সংবাদমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ অভিযোগ ও দাবি করেন। সালাহউদ্দিন আহমেদ বিবৃতিতে বলেন, আমরা অত্যন্ত দৃঢ়ভাবে তথ্য-উপাত্ত সহকারে জাতির সামনে বার বারই উপস্থাপন করেছি। এ সব জঘন্য পেট্রোল-বোমাবাজির সঙ্গে সরকারি দলের নেতাকর্মীরাই জড়িত। গণতন্ত্র মুক্তির ন্যায্য আন্দোলনকে দমন-পীড়নের সব অপচেষ্টাই ব্যর্থ হয়ে এখন কেবল নিয়ন্ত্রিত ও দলকানা কতিপয় মিডিয়ার বদৌলতে অনির্বাচিত ও অবৈধ সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়। জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে ফেরাতে চায়। বিবৃতিতে তিনি বলেন, ৫ জানুয়ারির (২০১৪) প্রহসনের নির্বাচনের মাধ্যমে লুণ্ঠনকৃত রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা চিরস্থায়ীকরণের প্রাণান্তকর আওয়ামী কসরত জাতীয় জীবনে চরম রাজনৈতিক সংকট উৎপত্তির মূল কারণ। গায়ের জোরে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বিলুপ্তি ঘটানোর ফলেই সাংবিধানিক ও রাজনৈতিক সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। তিনি বলেন, বাকশালের অনুকরণে একদলীয় শাসনব্যবস্থা কায়েমের উগ্র বাসনাই জাতিকে চরম সংকটে নিপতিত করেছে। সরকারের সমালোচনা করে বিবৃতিতে বলা হয়, বিরোধী দলের কার্যালয় তালাবদ্ধ করে, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অবরুদ্ধ করে, বিদ্যুৎ, টেলিফোন, ফ্যাক্স, ইন্টারনেট, ক্যাবল লাইন কেটে দিয়ে এবং সর্বশেষ খাদ্য সরবরাহ বন্ধ করে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী দেশের মানুষকে গণতন্ত্রের ছবক শেখাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী ও তার নেতামন্ত্রীদের মিথ্যার বেশাতি এ দেশের জনগণ এবং সারাবিশ্ব জানে। বিবৃতিতে সালাহ উদ্দিন উল্লেখ করেন, গতকাল (মঙ্গলবার) প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, দেশের পরিস্থিতি ১৯৭১ সালের মতো। তিনি ঠিকই বলেছেন। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ৭১-এ শাসক শ্রেণির বিরুদ্ধে জনগণের মুক্তি সংগ্রাম জাতীয় মুক্তিযুদ্ধ সংগঠিত হয়েছিল। আর বর্তমানে গণতন্ত্র হত্যাকারী আওয়ামী দুঃশাসনের বিরুদ্ধে জনগণের অভিপ্রায় অনুযায়ী গণতান্ত্রিক সমাজ পুনঃপ্রতিষ্ঠার দুর্বার আন্দোলন পরিচালিত হচ্ছে। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনায় সমৃদ্ধ প্রকৃত গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ও সমাজ বিনির্মাণে জাতীয় ঐক্যমতের বিকল্প নেই। সেই জাতীয় স্পৃহা পূরণে সমগ্র জাতি আজ ঐক্যবদ্ধ। বিজয় দ্বারপ্রান্তে উল্লেখ করে বিবৃতিতে বলা হয়, জনগণের ভোটের অধিকার আদায়ের মধ্য দিয়ে গণতন্ত্র পুনর্প্রতিষ্ঠা, সাংবিধানিক মৌলিক ও মানবাধিকার আদায়ের সংগ্রামে আন্দোলনরত জনগণ বিজয়ের দ্বারপ্রান্তে উপনীত প্রায়। বিভিন্নস্থানে জামায়াত নেতাকর্মীর নিহত হওয়ার ঘটনার নিন্দা জানিয়ে সালাহ উদ্দিন বলেন, আমরা এহেন ঘৃন্য নরহত্যার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। ক্ষমতার পট পরিবর্তন হলে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী আদালতে এ সব নরহত্যার বিচার করা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সতর্ক করে দিয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে স্মরণ করিয়ে দিতে চাই, আপনার পিতা রক্ষীবাহিনী সৃষ্টি করে ৩০ হাজার মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যা করেছে; অসংখ্য বিরোধী মতের রাজনৈতিক নেতাকর্মীকে বিনাবিচারে হত্যা করে হত্যার রাজনীতি প্রচলন করেছিলেন। আওয়ামী লীগ বিলুপ্ত করে একদলীয় বাকশাল কায়েম করে স্বঘোষিত সম্রাট বনে গিয়েও শেষ রক্ষা হয়নি। আপনিও চলমান গণআন্দোলনকে দমন করার জন্য আপনার পেটোয়া পুলিশ-র‌্যাব ও বিজিবিকে দলীয় বাহিনীতে পরিণত করে নরহত্যার নির্দেশ প্রদান করে গণতন্ত্রের শবযাত্রার আয়োজন সম্পন্ন করেছেন। ইতিহাস থেকে শিক্ষা নিন। পিতার নির্মম পরিণতির কারণ বিশ্লেষণ করুন। গণহত্যা বন্ধ করুন। আবার নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন দাবি করে বিএনপি যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমেদ বলেন, নির্দলীয় সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে দ্রুত পদত্যাগ করুন। তবেই জনগণ আপনার নিরাপদ অবতরণের বিষয়টি সহানুভূতির সাথে বিবেচনা করবে।
--------
হিযবুত তাহরীরকে হুমকি বলে মনে করে না আইজিপি
নিষিদ্ধঘোষিত হিযবুত তাহরীরকে হুমকি বলে মনে করে না পুলিশ। আজ বুধবার রাজধানীর কুর্মিটোলায় র‍্যাবের সর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক এই অভিমত ব্যক্ত করেন। আইজিপি বলেন, আমরা মনে করি না যে তারা আইএসের মতো। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সাময়িকী কাউন্টার টেররিজম এক্সচেঞ্জে (সিটিএক্স) প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়, জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) চেয়েও ভবিষ্যতে বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে ইসলামপন্থী আরেক জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহরীর। নিষিদ্ধ এই সংগঠন বিশ্বজুড়ে নিরাপত্তা ও গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের নজরদারি চাতুর্যের সঙ্গে এড়িয়ে চালিয়ে যাচ্ছে তাদের কর্মকাণ্ড। নিরীহ মানুষের পায়ে কেন গুলি করা হচ্ছেএমন প্রশ্নের জবাবে তিনি সাংবাদিকদের পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে বলেন, তাঁরা যে নিরীহ লোক সেটা আপনারা কী করে বুঝবেন? তিনি বলেন, লোকটা নিরীহ কি না, সেটা তো তদন্তের বিষয়। আক্রান্ত হলে আত্মরক্ষার অধিকার পুলিশের আছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে পদে পদে জবাবদিহির মুখে পড়তে হয়। ২০ দলীয় জোটের চলমান অবরোধ-হরতালের মধ্যে গাড়িতে আগুন দেওয়ার ঘটনার প্রেক্ষাপটে বর্তমানে রাত নয়টার পর মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। আবার কবে রাতের বেলা যানবাহন চলাচল শুরু হবেজানতে চাইলে শহীদুল হক বলেন, পরিস্থিতির অনেক উন্নতি হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় রাস্তায় ৫৪ হাজার গাড়ি চলেছে। পরিবহন সংশ্লিষ্টরা যদি মনে করেন, তাহলে তারা গাড়ি চালাতে পারবেন। হুকুমের আসামি খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার করা হবে কি নাজানতে চাইলে আইজিপি বলেন, এটা এ মুহূর্তে বলা যাবে না। পুরো বিষয়টি তদন্তকারী কর্মকর্তাদের ওপর নির্ভরশীল। তাঁরা যদি সাক্ষ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে সহায়তা চায়, আমরা সহায়তা দেব। সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকেরা জানতে চান, দেশে কী এমন পরিস্থিত হয়েছে যে রাস্তায় ট্রাফিক পুলিশ বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট পরে দায়িত্ব পালন করছেন? এর জবাবে শহীদুল হক বলেন, পুলিশের যখন যা দরকার তখন সে পোশাক পরে। সে চাইলে ইচ্ছেমতো পোশাক পরতে পারে না। তাকে সরকারের অনুমোদিত পোশাক পরতে হয়। সেটা বুলেটপ্রুফ, না স্প্লিন্টারপ্রুফ সেটা বড় কথা নয়। বোমা হামলার নেপথ্যের লোকজন শনাক্ত হয়েছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে আইজিপি বলেন, হামলার অর্থদাতা, পরিকল্পনাকারী, নির্দেশদাতাদের চিহ্নিত করা হয়েছে। এ ব্যাপারে যথেষ্ট সাক্ষ্য প্রমাণ আছে। অনেকে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছেন। আজ সকালে র‍্যাবের সদর দপ্তরে ১৪টি ব্যাটালিয়নের অধিনায়কদের সম্মেলন ছিল। এ উপলক্ষে আইজিপি সেখানে যান। তিনি অধিনায়কদের সঙ্গে বৈঠক করেন। এরপর তিনি সংবাদ সম্মেলন করেন। এ সময় সেখানে র‍্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, অতিরিক্ত মহাপরিচালক কর্নেল জিয়াউল আহসানসহ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
--------
 
 

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ইউক্রেনীয় সেনাদের আত্মসমর্পণের আহ্বান পুতিনের
ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলের কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ শহর দেবালৎসেভে রুশপন্থী বিদ্রোহীদের সঙ্গে যুদ্ধরত ইউক্রেনীয় সেনাদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ইউক্রেনের সরকার ও রুশপন্থী রুশপন্থী বিদ্রোহীদের মধ্যে গত সপ্তাহে নতুন একটি অস্ত্রবিরতি চুক্তি সই হলেও দেবালৎসেভ শহর দখলে নিতে দুপক্ষের মধ্যে তুমুল যুদ্ধ অব্যাহত রয়েছে। মঙ্গলবার হাঙ্গেরির উদ্দেশে দেশ ছাড়ার আগে মস্কোয় পুতিন বলেন, তিনি আশা করেন, অস্ত্রবিরতি চুক্তি দুপক্ষই মেনে চলবে। নতুন চুক্তি সই হওয়ার পর দুপক্ষের মধ্যে যুদ্ধের তীব্রতা তাৎপর্যপূর্ণভাবে কমেছে বলে মন্তব্য করেন তিনি। সামরিক উপায়ে সংকট সমাধান করা যাবে না উল্লেখ করেন পুতিন বলেন, তিনি আশা করেন, সেনাবাহিনী তাদের অস্ত্র ফেলে দিয়ে বিদ্রোহীদের কাছে আত্মসমর্পণ করলে ইউক্রেনের সরকার তাতে বাধা দেবে না। যদি তারা (ইউক্রেন সরকার) ওই আত্মসমর্পণের সিদ্ধান্ত দিতে সক্ষম না হয়, তাহলে যেসব লোক (বিদ্রোহীরা) নিজেদের ও অন্যদের জীবন বাঁচাতে চায়, তাদের পরবর্তীতে বিচারের আওতায় আনতে পারবে না তারা। পুতিন আরো বলেন, মিনস্কে আলোচনার সময় আমি অংশগ্রহণকারীদের সতর্ক করেছিলাম- অস্ত্রবিরতি চুক্তি হোক আর নিই হোক, সরকারি বাহিনী যখনই শহর দখলের চেষ্টা করবে, তখন বিদ্রোহীরা সেটা প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করবে। আর দেবালৎসেভে সেটাই ঘটছে এখন। দেবালৎসেভে সংঘর্ষে সেনা ও বিদ্রোহীসহ অর্ধশতাধিক লোক নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে কয়েক শ। রেল জংশনের জন্য বিখ্যাত শহরটির বেশিরভাগ এলাকা বিদ্রোহীদের দখলে। বেশকিছু সেনাকে আটকও করা হয়েছে। দেবালৎসেভে যুদ্ধ গ্রহণযোগ্য ও প্রত্যাশিত বর্ণনা করে পুতিন আশা করেন, যেসব সেনা বিদ্রোহীদের হাতে আটক রয়েছেন, তারা নিজেদের পরিবারের কাছে ফিরে যাওয়ার সুযোগ পাবেন। বিদ্রোহীরা এ ক্ষেত্রে সহায়তা করবে। এদিকে, ইউক্রেন সংকট সমাধানে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ একটি জরুরি বৈঠকের ঘোষণা দিয়েছে।
--------
নিলামে উঠছে মোদির আলোচিত স্যুট
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আলোচিত একটি দামি স্যুট আজ বুধবার নিলামে উঠছে। নিলাম হবে গুজরাটের সুরাটে। গত মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার ভারত সফরের সময় প্রধানমন্ত্রী মোদি ১০ লাখ রুপি মূল্যের ওই স্যুটটি পরেন। ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির হায়দরাবাদ হাউসে ওবামার সঙ্গে চা-চক্র এবং পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মোদির গায়ে ওই স্যুটটি দেখা যায়। স্যুটটিতে সোনালি হরফে প্রধানমন্ত্রী মোদির পুরো নাম লেখা রয়েছে। এই স্যুট পরার পর সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীও এ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করেন। সেই স্যুটটিই আজ নিলামে উঠছে। আজ আরও নিলামে উঠছে উপঢৌকন হিসেবে বিভিন্ন সময়ে মোদির পাওয়া ৪৫৫টি উপহারসামগ্রী। নিলাম চলবে তিন দিন। সুরাটের পৌর কমিশনার মিলিন্দ তোরাভানে গতকাল মঙ্গলবার জানিয়েছেন, নিলামে পাওয়া অর্থ গঙ্গা শোধনের কাজে ব্যবহার করা হবে।
--------
লিবিয়ায় আইএস অবস্থানে মিশরের বিমান হামলা
লিবীয় ইসলামিক স্টেট (আইএস) ২১ মিশরীয় খ্রিস্টান নাগরিকের শিরশ্ছেদ করার ভিডিও প্রকাশের এক দিনের মধ্যেই দেশটির আইএস অবস্থানে বিমান হামলা চালিয়েছে মিশরীয় বাহিনী। সোমবার ভোরে এসব হামলা চালানো হয়েছে বলে মিশরীয় রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে দেয়া এক বিবৃতিতে জানিয়েছে দেশটির সামরিক বাহিনী। হামলায় লিবিয়ায় আইএসর শিবির, প্রশিক্ষণ এলাকা এবং অস্ত্র গুদাম ধ্বংস করা হয়েছে বলে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে। লিবিয়ার জঙ্গি ঘাঁটিগুলো প্রতিবেশী মিশরের নিরাপত্তা জন্য গুরুতর হুমকি বলে বারবার দাবি করে আসছিলেন মিশরীয় প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তা আল-সিসি। নিজ দেশের সিনাই উপদ্বীপেও জঙ্গি তৎপরতার মোকাবিলা করছে মিশর। সিনাইয়ের জঙ্গিরা আইএসর সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেছে। আইএসর প্রকাশ করা ভিডিওতে দেখা গেছে, কমলা রঙের পোশাক পরিহিত ২১ জন মিশরীয় খ্রিস্টান ব্যক্তিকে সাগর পাড়ে নিয়ে হাঁটু গেড়ে বসিয়ে শিরশ্ছেদ করছে আইএস জঙ্গিরা। জঙ্গিদের পুরো শরীর কালো পোশাকে ঢাকা। কাজের খোঁজে এসব মিশরীয় লিবিয়ায় গিয়েছিলেন। ২০১৪ সালের ডিসেম্বর ও জানুয়ারিতে লিবিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় সির্তে শহর থেকে তাদের অপহরণ করা হয়। কিছুদিন ধরে ওই এলাকা ইসলামি জঙ্গিদের নিয়ন্ত্রণে। রোববার ওই ভিডিও প্রকাশের পর প্রেসিডেন্ট সিসি এর তীব্র নিন্দা জানিয়ে সমুচিত জবাব দেওয়ার কথা বলেছিলেন। মিশরের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সঙ্গে বৈঠক করে সাতদিনের জাতীয় শোক ঘোষণা করেন তিনি। শিরশ্ছেদের ওই ভিডিও অনলাইনে প্রকাশ করেছে লিবিয়ার একটি জিহাদি গ্রুপ, যারা ইসলামিক স্টেটের (আইএস) অনুসারী। অপহৃতদের যে ধর্মীয় বিদ্বেষ থেকেই হত্যা করা হয়েছে, তাও স্পষ্ট হয়েছে ভিডিওর সঙ্গে দেওয়া ক্যাপশনে।
--------
হাসিমুখে বিশ্বকাপ শুরু বাংলাদেশের
এশিয়া কাপে আফগানিস্তানের বিপক্ষে হারটা বেশ ভালোই ভুগিয়েছে বাংলাদেশকে। এবারের বিশ্বকাপ মিশন শুরুর আগে বারবারই এসেছে সেই হারের প্রসঙ্গ। বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানকে ১০৫ রানে হারিয়ে প্রতিশোধটা দারুণভাবেই নিল বাংলাদেশ। ২৬৮ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ৪২.৫ ওভারে ১৬২ রানে গুটিয়ে গেছে আফগানিস্তান। মাশরাফি-সাকিব-মুশফিকদের অসাধারণ পারফরমেন্সে আফগানদের হারিয়ে বিশ্বকাপে দারুণ সূচনা করলো বাংলাদেশ। বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ব্যাটে-বলে বাজিমাত করে ১০৫ রানের সহজ জয় পায় টাইগাররা। টাইগারদের দেওয়া ২৬৮ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় আফগানিস্তান। মাশরাফি ইনিংসের প্রথম ওভারের শেষ বলেই সাজঘরে ফেরান জাভেদ আহমাদিকে (১ রান)। নিজের বলে নিজেই ক্যাচ ধরেন নড়াইল এক্সপ্রেস। এর পরের ওভারের প্রথম বলেই রুবেলের আঘাতে ফেরেন আফসার জাজাই। ইনিংসের তৃতীয় ওভারের নিজের দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক আবার আঘাত হানেন আফগান শিবিরে। তিন রানে ৩ উইকেট হারিয়ে দিশেহারা আফগানরা ধীর গতিতে রান সংগ্রহ করে টাইগারদের মোকাবেলার চেষ্টা করে। ৬২ রানের জুটিও গড়েন সেনওয়ারি আর নওরোজ মঙ্গল। তবে, ম্যাচের ২২.৪ ওভারে মাহমুদুল্লাহ এ জুটি ভাঙেন। নওরোজকে ব্যক্তিগত ২৭ রানে রুবেলের অসাধারণ ক্যাচে সাজঘরে ফেরাতে বাধ্য করেন মাহমুদ। এরপর ব্যক্তিগত ৪২ রান করা সেনওয়ারিকে রান আউট করে বিদায় করে টাইগাররা। দলীয় ৭৮ রানের মাথায় আফগানদের পঞ্চম উইকেটের পতন ঘটে। সাকিব আল হাসান এলবির ফাঁদে ফেলে বিদায় করেন ১৭ রান করা জাদরানকে। আর পরের ওভারের প্রথম বলেই মাশরাফি ফেরান আফগান দলপতি নবীকে। নবী আউট হওয়ার আগে করেন ৪৪ রান। এর আগে টসে জিতে সাকিব-মুশফিকের ব্যাটে ভর করে টাইগাররা অলআউট হওয়ার আগে সংগ্রহ করে ২৬৭ রান। বাংলাদেশের ক্রিকেট প্রাণ সাকিব আল হাসান দলকে ভালো অবস্থানে রেখে সাজঘরে ফেরেন। হামিদ হাসানের বলে বোল্ড হয়ে ব্যক্তিগত ৬৩ রান করে আউট হন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। তার ইনিংসটিতে ছিলো একটি ছয়ের ও ৬টি চারের মার। পঞ্চম উইকেট জুটিতে সাকিবের সঙ্গে ১১৪ রানের জুটি গড়া মুশফিক খেলেন ৭১ রানের একটি চোখ ধাঁধানো ইনিংস। আফগান দলপতি মোহাম্মদ নবীর বলে সেনওয়ারির তালুবন্দি হওয়ার আগে মুশফিক ৫৬ বল খেলে ৬টি চার আর একটি ছক্কায় সাজান ৭১ রানের অনবদ্য ইনিংস।
--------
 
";